নারায়ণগঞ্জ৭১: পরিবার ও সন্তানের পরিচর্যা, দেখা শোনায় কেটে যায় সারাদিন। তাদের প্রয়োজন, পছন্দ-অপছন্দ, ইচ্ছে, ফরমায়েশের মধ্যেই প্রতিটি মুহুর্ত কাটে সংসার পাগল গৃহিনীদের। স্বাস্থ্যসম্মত, পুষ্টিকর তার পাশাপাশি সুস্বাদু খাবার রান্না প্রতি গৃহিনীর কাছেই চ্যালেঞ্জ। কারো কাছে জটিল হলেও, কেউ কেউ আবার রান্নাকেই শখে পরিণত করে।

নিত্যদিনের জটিল এই কাজটি সহজ করতে ও নিজের শখকে শৌখিন কারুকার্যে পরিণত করতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একত্রিত হয়েছিল কয়েকজন নারী। ফেসবুক গ্রুপ ‘মুনিয়া’স কিচেন’ এর মাধ্যমে প্রতিদিন নিজেদের কাজ, শখ, আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতেন তারা।

দীর্ঘ ৪ বছরে একে অপরের সুখ, দুঃখ, আনন্দ, প্রতিভা, জটিলতা সমাধান করতে করতে সকলের মধ্যে তৈরি হয় বন্ধুত্বের গভীর বন্ধন। আর এই বন্ধনের ডাকে শুক্রবার (২৩ আগস্ট) মেলা ফুড ভিলেজ রেস্তোরাতে অনুষ্ঠিত হয় ‘মুনিয়া’স কিচেন’ গ্রুপের প্রথম গেট টুগেদার। এ সময় একত্রিত হন প্রায় শতাধিক গৃহিনী। আনন্দঘন পরিবেশে গ্রুপের সকল সদস্যদের সঙ্গে সময় কাটান তারা। আড্ডা, হাসি, গানে মেতে উঠেন সবাই। যেন সবাই একই পরিবারের সদস্য। দীর্ঘ দিনের পরিচয় তাদের। অনেকে বন্ধুদের জন্য নিজ হাতে তৈরি করে নিয়ে এসেছেন নানা খাবার।

আয়োজক জুই বলেন, ‘নিজেদের মধ্যে খাবারের রেসিপি শেয়ার করার জন্য এবং নতুন নতুন খাবার আইডিয়ার জন্যই গ্রুপটি বানানো হয়। যেখানে প্রথম পর্যায়ে আমাদের পরিচিত ও আশেপাশের মানুষরাই ছিল। কিন্তু এখন গ্রুপের সদস্য সংখ্যা ৬ হাজার। আর এরা সবাই আমাদের পরিবার।’

এডমিন মুনিয়া বাঁধন বলেন, ‘আজ যারা আমাদের আয়োজনে এসেছেন তারা সবাই একে অপরকে চেনেন, ভালোবাসেন। বাড়ি যত দূরেই হোক, তাদের মন খুব কাছাকাছি। আজ শুধু গৃহিনীরাই আসেনি, তাদের সঙ্গে তাদের পরিবারও এসেছে। প্রতিদিন যেমন গ্রুপের মাধ্যমে নিজেদের দূর থেকে কথা বলেন আজ তারা একসঙ্গে বসে বসে তা করছেন। এটি একটি মিলন মেলা নয়, আমাদের ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ।’

এ সময় উপস্থিত ছিল, মুনিয়া’স কিচেন গ্রুপের এডমিন মুনিয়া বাঁধন, সাজিয়া আরফিন, আমেনা রহমান, তানিয়া পপি, মডারেটর কুসুম রোজি, সাদ জামান, মালিহা শারমিন, ফারজানা নিপু প্রমুখ। তারা বিশেষ ধন্যবাদ জানান, গ্রুপের সদস্য শারমিন ডালি সোনিয়া, তাহমিনা আলম তাম্মি ও বোম্বে কালেকশকে।