নারায়ণগঞ্জ ৭১: এবার আইভীর বিরুদ্ধে সমন জারি আদালতের। নারায়ণগঞ্জ শহরের ২নং রেল গেইট সংলগ্ন রহমতউল্লাহ মুসলিম ইনস্টিটিউট ভবন গুঁড়িয়ে দেওয়ায় নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীকে সমন জারি করেছে আদালত।

২৮ আগস্ট বুধবার ভুক্তভোগীদের আবেদনের প্রেক্ষিতে নারায়ণগঞ্জের একটি আদালত ওই সমন জারি করেন।

আদালত সূত্র মতে, নারায়ণগঞ্জ শহরের দুই নং রেল গেটস্থ রহমতউল্লাহ মুসলিম ইন্সটিটিউট ভবন গত ২০ জুন ভেঙ্গে ফেলে সিটি করপোরেশন। এ নিয়ে দোকান মালিকদের সঙ্গে সিটিকরপোরেশনের মামলা চলছিল। এ ভবন ভাঙতে আদালতের স্থায়ী নিষেধাজ্ঞা ছিল। ওই নিষেধাজ্ঞার পরে ভবন ভেঙ্গে ফেলায় বিষয়টি আদালতে গড়ায়। আদালতের নিষেদাজ্ঞা

অমান্য করার অভিযোগে আদালতে শুনানী শেষে আদালত মেয়র আইভী সন অন্যদের বিরুদ্ধে সমন জারি করেন।ভুক্তভোগীদের পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি হাসান ফেরদৌস জুয়েল, সেক্রেটারী মোহসিন মিয়া, অমিতাভ সরকার প্রমুখ।

স্থানীয়রা জানান, মুসলিম সাংস্কৃতিক চর্চার জন্য ১৯৪৩ সালে রহমত উল্লাহ নামে তৎকালীন মহকুমার প্রশাসক টিনের ঘর নির্মাণ করে রহমত উল্লাহ মুসলিম ইন্সটিটিউট গঠন করা হয়। স্বাধীনতার আগে ও পরে এখানে নাটক, সঙ্গীত, আবৃত্তি সহ বিভিন্ন কার্যক্রম

পরিচালনা করা হয়। পরবর্তীতে এখানে টিনের ঘরের পরিবর্তে ৩ তলা ভবনটি নির্মাণ করা হয়। আর এ ইন্সটিটিউটের সভাপতি হলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক। গত ২০ জুন ভবনটি ভেঙ্গে ফেলা হয়। ভবনটিতে কনফেকশনারী, ফ্রিজ, এসি, সেলাই মেশিন, টেইলার, সুতা, রাবারের দোকান সহ প্রায় ৩৫টি দোকান ছিল। প্রতিটি দোকানেই

লাখ টাকার পন্য ছিল বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। ব্যবসায়ীদের দাবি তাদের কোনো সময় দেওয়া হয়নি। সকাল বেলা ভবন ভাঙ্গার জন্য এক্সকাভেটার নিয়ে এসে সরাসরিভাঙ্গা শুরু করে। ব্যবসায়ীরা কোনো মালামাল সরাতে পারেননি। এতে করে ক্ষতির মুখে পরেছেন ব্যবসায়ীরা।