নারায়ণগঞ্জ৭১: মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন বলেছেন, আমাদের মধ্যে বিভেদ অনৈক্য থাকতেই পারে, কিন্তু সেই জিনিসটা আমরা আমাদের ঐক্যবদ্ধতার মাধ্যমে প্রমাণ করবো আওয়ামীলীগ এক ও অভিন্ন। আপনারা শেখ হাসিনার আওয়ামীলীগ করেন।

আমরা কোন ভাইয়ের আওয়ামীলীগ করেন না কোন বোনের আওয়ামীলীগ করিনা, আপনারাও কইরেননা। আমরা নারায়ণগঞ্জে শেখ হাসিনার আওয়ামীলীগ করতে চাই।বঙ্গবন্ধুর আওয়ামীলীগ করতে চাই বঙ্গবন্ধুর আওয়ামীলীগের মধ্যে দিয়ে আমরা বঙ্গবন্ধু আদর্শকে বাস্তবায়ন করতে চাই। যেই আদর্শ হারিয়ে গিয়েছিলো আমাদের কাছ থেকে। আর আওয়ামীলীগ তো মানুষের কল্যাণের জন্যই কাজ করে।

শনিবার (৩১ আগস্ট) বিকালে বঙ্গবন্ধুর ৪৪তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের উদ্যেগে বিশাল এক শোক র‌্যালি শেষে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। 

তিনি আরো বলেন, আমাদের জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যদি বেঁচে থাকতো তাহলে এই বাংলাদেশ আজ বিশ্বে দরবারে হংকং, মালেয়শিয়ার মতো রাষ্ট্র হতো। কিন্ত আজকে বঙ্গবন্ধুর কন্যা আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে বিশ্বের মতো উন্নত রাষ্ট্র হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। তাই আসুন, আমরা তাঁর আদর্শকে বাস্তবায়ন করার জন্য ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করি।

এরআগে বঙ্গবন্ধুর ৪৪তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে মহানগর আওয়ামী লীগের ব্যানারে বিকেল ৪টায় ২নং রেলগেট কার্যালয় থেকে এক বিশাল শোকর‌্যালি বের করা হয়। শোকর‌্যালিটি নগরীরর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে চাষাঢ়া নূর মসজিদের সামনের মোড় ঘুরে আবারও আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে গিয়ে শেষ হয়। র‌্যালিতে মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন, সাধারণ সম্পাদক খোকন সাহা, যুগ্ম সম্পাদক আহসান হাবীব, জিএম আরমান, শাহ নিজাম, সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল, মাহমুদা মালা, মহানগরের আইন বিষয়ক সম্পাদক ওয়াজেদ আলী খোকন, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক আতিকুজ্জামান সোহেলের নেতৃত্বে অসংখ্য নেতাকর্মী উপস্থিত হন। ও মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি জুয়েল হোসেন, শহর যুবলীগের সভাপতি শওকত হোসেন সাজনু, মহানগর আওয়ামীলীগের সদস্য নাসিক কাউন্সিলর আব্দুল করিম বাবু, কবির হোসেন, নাজমুল আলম সজল, সাবেক কাউন্সিলর মনিরুজ্জামান মনির, মহানগর যুব মহিলা লীগের আহবায়ক নুরুন্নাহার সন্ধ্যাসহ মহানগর আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা অংশগ্রহণ করেন।