নারায়ণগঞ্জ৭১: নারায়ণগঞ্জের প্রয়াত সংসদ সদস্য একেএম নাসিম ওসমানের পুত্র আজমেরী ওসমানের নামে কালিরবাজারে বাচ্চু নামে ব্যবসায়ীর কাছে ৬৫ হাজার টাকা দাবির অভিযোগ মিথ্যা উল্লেখ করে মামলা প্রত্যাহারের আবেদন জানিয়েছেন খোদ মামলার বাদী কালিরবাজারে বাচ্চু । তিনি আদালতে হাজির হয়ে নিজেই স্বেচ্ছায় জবান বন্ধি দিয়ে মামলায় গ্রেফতার হওয়া জাতীয় ছাত্র সমাজের জেলা সভাপতি রুপু ও তার বন্ধুর জামিনের জন্য আইনজীবীর মাধ্যমে আবেদন জানিয়ে দুজনকে জামিনে মুক্ত করান।আর ঘটনাটি টক অব দ্যা টাউনে পরিনত হতে শুরু হয়েছে।

পুলিশ সুপার ও সদর মডেল থানার ওসির উদ্দেশ্যে দেওয়া আবেদনে বাচ্চু উল্লেখ করেন,‘‘আমি ভুল বুঝাবুঝির কারণে আজমেরী ওসমান, মোকলেছুর রহমান, শাহাদাৎ হোসেন রুপু ও জুয়েলের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছিলাম।

পরবর্তীতে আমি ভুল বুঝতে পারি। প্রকৃতপক্ষে উল্লেখিত ব্যক্তিগণ আমার কাছে কোনরুপ চাঁদা দাবি করে নাই, চাঁদার দাবিতে ফোনও করে নাই এবং আমাকে মারপিটও করে নাই।

ঘটনাটি সম্পূর্ণ ভুল বুঝাবুঝি ছিল। উক্ত ব্যক্তিগণের বিরুদ্ধে আমার আর কোন অভিযোগ নাই ও রইলো না। উক্ত ব্যক্তিগণ মোকাদ্দমার দায় হতে মুক্তি অব্যাহতি পেলে বা মোকাদ্দমার চূড়ান্ত রিপোর্ট দাখিল করলে আমার কোন আপত্তি থাকবেনা।’

এদিকে ওই ঘটনায় গ্রেফতার নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্র সমাজের সভাপতি সহ দুইজনের জামিন মঞ্জুর করেছে আদালত। ১৫ সেপ্টেম্বর রোববার দুপুরে জেলা ও দায়রা জজ আনিসুর রহমান তাদের জামিন মঞ্জুর করেন।

জামিনপ্রাপ্তরা হলেন সোনারগাঁও উপজেলার নাজির পুর এলাকার গোলজার হোসেনের ছেলেমোকলেছুর রহমান (৩৫) ও ফতুল্লা ইসদাইর এলাকার মো. ফকির চাঁনের ছেলে জেলা ছাত্র সমাজের সভাপতি শাহাদৎ হোসেন রুপু এবং পলাতক জুয়েল (৩০)। আসামী পক্ষের আইনজীবী হিসেবে ছিলেন অ্যাডভোকেট সুইটি ইয়াসমিন।